বরইয়ের আচার
বরইয়ের আচার এর রেসিপি

বরইয়ের আচার এর রেসিপি ২০২২

5/5 - (1 vote)

বরইয়ের আচার এর রেসিপি

শীতকাল বরইয়ের আচার তৈরির জন্য উপযুক্ত সময়‌। কারণ শীতকালে আমাদের দেশে সবচেয়ে বেশি বরই চাষ হয়। তবে সারা বছর কমবেশি কোন কোন স্থানে বরই চাষ হতে দেখা যায়।
তবে শীতকালে তৈরি বরইয়ের আচার শুকানোর জন্য উপযুক্ত আবহাওয়া বিরাজ করে।
নেবো ঘরে বসেই বরইয়ের আচার তৈরির সহজ রেসিপি

প্রথমে আকারে বড় এবং পরিষ্কার বড়ই নির্বাচন করতে হবে। বরই গুলো হাল্কা পাকা হলে আচার সুস্বাদু হয়। বড়ই গুলো ভালভাবে ধুয়ে নিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন পচা বরই কোনোভাবেই আচার তৈরির জন্য ব্যবহার করা না হয়। অনেকগুলো বরইয়ের মধ্যে মাত্র একটি পচা বরই থাকলে ও তার সম্পূর্ণ আচারের গুনাগুন নষ্ট করে।

পাকা বড়ই হাত দিয়ে ভালোভাবে গলিয়ে নিতে হবে। এরপর ভিনেগার বা সিরকা দিয়ে তা ভালোভাবে মাখতে হবে। এরপর পরিষ্কার একটি কড়াইয়ে তেল দিয়ে তাতে পাচফোরন তেজপাতা ও শুকনা মরিচ দিতে হবে। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করতে হবে।

গলানো বইগুলো করাইয়ের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। এরপর কিছুক্ষন নাড়াচাড়া করতে হবে। বরই ভুলে গিয়ে রাতে হালকা পানি উঠলে চিনি দিতে হবে।
চিনির পরিবর্তে গুড় ব্যবহার করা যেতে পারে। চিনি বা গুড় এর পরিমাণ আপনার পছন্দের উপর নির্ভর করে।

বরইয়ের আচার এর রেসিপি

এরপর হালকা পানি দিয়ে ভালোভাবে নাড়তে হবে। পানি শুকিয়ে এলে তা ঢেকে দিতে হবে। আনুমানিক ১৫  থেকে ২০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে দিয়ে আবার নাড়তে হবে।
বরইয়ের আচার রেডি। এরপর একটি পাত্রে ঢেলে ঠান্ডা করতে হবে। এবং এক সপ্তাহ কড়া রোদে শুকাতে হবে।আচার শুকানোর পর তা কাচের বয়ামে সংরক্ষণ করতে হবে।সংরক্ষন করার ক্ষেত্রে সিরকা ভিনেগার ব্যবহার করলে তা বছরের-পর-বছর ভালো থাকে।

এভাবে বরইয়ের আচার ঘরোয়া পদ্ধতিতে অতি সহজে তৈরি করা যায়।
বরইয়ের আচার যেমন সুস্বাদু তেমনি পুষ্টিগুণে ভরা। বরই আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী।
বরই খেলে শরীরের বিভিন্ন রকম অ্যান্টিবডি তৈরি হয়। আর বরইয়ের আচার খুবই মুখরোচক এবং তার দৈনন্দিন খাবারের সাথে খাওয়া যায়।
প্রিয় পাঠক এভাবেই বরইয়ের আচার ঘরোয়া পদ্ধতিতে অতি সহজেই তৈরি করে ফেলতে পারেন।

টক টক্‌ ঝাল কিংবা টক্‌ ঝাল-মিষ্টি। আচার তৈরিতে প্রধান তিন উপাদান। জিভে জল এসে যায়। খাবারের আয়োজনে বাড়তি স্বাদের প্রয়োজন মেটাতে আচারের বিকল্প নেই। গৃহিণীদের রান্নাঘরে আম, জলপাই, বড়ুই, তেঁতুল, আমলকি কিংবা লেবুর আচার পাওয়া যাবে না এমনটি ভাবাই যায় না।সুস্বাদু খাবার খেতে কে না ভালোবাসে। খাবারের সাথে একটুখান আচার মিশিয়ে নিলে তা হয়ে উঠে যথেষ্টই মুখরোচক। এ আপ্পস এ নানা রকম আচার বানানোর পদ্ধতি সম্পর্কে লেখা হয়েছে। এগুলো বানাতে সময়ও লাগবে খুব কম।

ঘুমিয়ে নাক ডাকার কারণ কি ?

Learn More

About bdbarguna24